Ekhon TV :: এখন টিভি

বুট স্পন্সরশিপ থেকে আয়ের শীর্ষে নেইমার, দ্বিতীয় মেসি

রাশেদ অমিত , এখন টিভি

২৫ মার্চ ২০২৩, ১৪:২৩

বিপণনের অংশ হিসেবে নিজেদের পণ্য ব্যবহারে ফুটবলারদের সঙ্গে চুক্তি করে থাকে ক্রীড়াসামগ্রী প্রস্তুতকারক বহুজাতিক প্রতিষ্ঠানগুলো। ফুটবলারদের সবচেয়ে আবেগ ও পছন্দের বিষয় হলো তাঁর ব্যবহৃত বুট। তারকা ফুটবলারদের প্রিয় বুট জোড়াকে স্পন্সর করতে রীতিমতো প্রতিযোগিতায় নামে বিশ্বের নামকরা প্রতিষ্ঠানগুলো।

মাঠের মানুষ সর্বোচ্চ কতোদিন মাঠের বাইরে থাকতে পারেন, এ নিয়ে প্রতিযোগিতা হলে নেইমার নিশ্চিতভাবেই সবার উপরে থাকবেন। সর্বশেষ ফরাসি লিগে আঁতে লিলের বিপক্ষে নতুন করে অ্যাঙ্কেলের চোটে পড়ে মৌসুমই শেষ হয়ে গেছে। মাঠের সঙ্গে নেইমারের দূরত্ব যতই বাড়ুক, বুটের চুক্তিতে তাঁর ধারে কাছেও কেউ নেই।

২০২০ সালে নাইকির সঙ্গে ১৫ বছরের চুক্তি শেষ হয় নেইমারের। নতুন চুক্তি হয় জার্মান প্রতিষ্ঠান পুমার সঙ্গে। পুমার বুট পায়ে দিয়ে বছরে নেইমার আয় করেন দুই কোটি ৫৯ লাখ ইউরো বা ২৯০ কোটি টাকা। স্পন্সর কোম্পানির সঙ্গে ব্যক্তিগত চুক্তির রেকর্ড এটি। আর চ্যাম্পিয়নস লিগ জিততে পারলে বছরে ৩৭ কোটি ৮৭ লাখ টাকা বোনাস পাবেন ব্রাজিলিয়ান এই ফুটবলার। 

এরপরই আছেন তাঁর বন্ধু ও ক্লাব সতীর্থ আর্জেন্টাইন ফুটবল তারকা লিওনেল মেসি। বুটের চুক্তি থেকে বছরে মেসি আয় করেন দুই কোটি ৩ লাখ ইউরো বা ২২৬ কোটি টাকা। অর্থাৎ নেইমারের চেয়ে ৬৪ কোটি টাকা কম পান মেসি। মেসির সঙ্গে অবশ্য আজীবনের চুক্তি করেছে জার্মান প্রতিষ্ঠান অ্যাডিডাস।

তালিকার তিন নম্বরে আছেন সিআর সেভেন রোনালদো। নাইকির সঙ্গে পর্তুগিজ মহাতারকার চুক্তি চিরকালের। নাইকির বুট পরে খেলতে নেমে বছরে এক কোটি ৬৯ লাখ ইউরো বা ১৮৯ কোটি টাকা পান রোনালদো, যা নেইমারের চেয়ে ১০১ কোটি টাকা কম।

হালের অন্যতম সেরা ফুটবলার কিলিয়ান এমবাপ্পে নাইকির সাথে চুক্তি করেন ২০১৯ সালে। মার্কিন প্রতিষ্ঠানটির বুট পরায় বছরে তাঁর অ্যাকাউন্টে জমা হয় এক কোটি ৫৮ লাখ ইউরো বা ১৭৬ কোটি টাকা। নাইকির সঙ্গে বিশ্বকাপজয়ী এই তারকার ১০ বছরের চুক্তি রয়েছে।

মেসি–রোনালদোরা অ্যাডিডাস ও নাইকির সঙ্গে আজীবন চুক্তি করে ফেলায়, ব্র্যান্ড পরিবর্তন করতে পারবেন না তাঁরা। এখান থেকে বাড়তি আয়েরও সুযোগ নেই তাঁদের। তবে বর্তমানে ফুটবলাররা বুটের চুক্তিতে মেসি–রোনালদোর পথে হাঁটেন না। তাঁরা কয়েক বছরের চুক্তি করায় মেয়াদ শেষে পাল্টে ফেলেন ব্র্যান্ড।

এছাড়া মাঠে ভালো পারফরম্যান্সের সঙ্গে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনুসারী বেশি হলে তাঁদের স্পন্সর হতে ক্রীড়াসামগ্রী প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠানগুলো অঢেল খরচ করতে কার্পণ্য করে না।

আরএন

Advertisement
Advertisement
Advertisement

এই সপ্তাহের সর্বাধিক পঠিত গুরুত্বপূর্ণ এখন মাঠে খবর